টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ

0
94

টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে (২৫) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার দিবাগত রাতে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।

 

নির্যাতনের শিকার ওই নারীর বাবার বাড়ি কালিহাতী আর স্বামীর বাড়ি সখিপুর উপজেলায়। ওই নারী জানান, গতরাতে তিনি তার স্বামীকে নিয়ে টাঙ্গাইল নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আসলে কয়েকজন যুবক তাদের আটক করে ডিসি লেকে নিয়ে যায়। পরে স্বামীর সামনে তিনজন যুবক তাকে ধর্ষণ করে। পরে তার স্বামী ছুটে গিয়ে ডিসি লেকের অদূরে সদর পুলিশ ফাঁড়ির কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে ওই নারী সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ওই নারীর স্বামী জানান, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে কালিহাতীর শ্বশুরবাড়ি থেকে টাঙ্গাইল এসে পৌঁছালে ওই পাঁচ যুবকের খপ্পড়ে পড়েন তারা। এ সময় ওই যুবকরা তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে ডিসি লেকের ভেতরে নিয়ে যায়। ডিসি লেকে তার স্ত্রী রেখে তাকে একটি মোটরসাইকেলে উঠতে বলে তারা। তবে তিনি স্ত্রীকে ছেড়ে যেতে রাজি না হওয়ায় ওই যুবকরা তাকে হত্যা করার হুমকি দেয় এবং তার স্ত্রীকে জোড়পূর্বক ডিসি লেকের নির্জন স্থানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় ওই যুবকদের বর্বরতা থেকে বাঁচতে হাতে পায়ে ধরাসহ নানাভাবে কাকুতি মিনতি করতে থাকেন তিনি। এ স্বত্ত্বেও ওই যুবকরা তাকে জোড়পূর্বক মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আসলে তিনি টহলরত পুলিশ দেখতে পান। এ সময় তিনি দৌড়ে পুলিশকে বিষয়টি জানান। তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে তার স্ত্রীকে উদ্ধার করেন। পর্যায়ক্রমে তিনি ওই পাঁচ ধর্ষককে শনাক্ত করে তাকে আটকে পুলিশকে সহায়তা করেন। টাঙ্গাইল মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সায়েদুর রহমান বলেন, রাতেই খবর পেয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. নারায়ণ চন্দ্র সাহা জানান, শনিবার ভোর ৫টার দিকে ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক পরীক্ষা শেষ হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

four + 1 =